গৃহকর্ত্রীকে জবাই করে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

8

ঢাকার ধামরাইয়ে একটি বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা বাড়িতে ঢুকেই বাড়ির গৃহকর্ত্রী রজবুন্নেসার (৮৫) গলা কেটে হত্যা করে। এরপর ওই নারীর দেহ ফ্রিজে রেখে বাড়ি ডাকাতি করে। এ সময় ওই নারীর স্বামী ফালুজ উদ্দিনকেও (১০০) কুপিয়ে জখম করেছে ডাকাতরা।

বৃহস্পতিবার ভোর রাতে ধামরাইয়ের সুতিপাড়া ইউনিয়নের বাথুলীর বালিথা গ্রামের ফালুজ উদ্দিন ব্যাপারীর বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতি হওয়ার খবর পেয়ে ধামরাই থানার পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হক জানান, গতকাল ভোর রাতে বালিথা গ্রামের ফালুজ উদ্দিনের দোতলা বাড়িতে ১০/১২ সদস্যের ডাকাতদল ঢোকে। ডাকাতরা ঘরে ঢুকেই একতলায় থাকা বাড়ির গৃহকর্ত্রী রজবুন্নেসাকে ঘুমন্ত অবস্থায় গলা কেটে হত্যা করে লাশ একটি ফ্রিজের ভেতরে রাখে।

এরপর ডাকাতরা ওই নারীর স্বামী ফালুজ উদ্দিন ব্যাপারীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে বাড়ি লুট করে পালিয়ে যায়। পরে সকালে ওই বাড়ির কাজের লোকেরা গেলে ডাকাতির বিষয়টি জানা যায়।

স্থানীয়রা এ সময় গুরুতর আহত ফালুজ উদ্দিনকে বাড়ি থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে ধামরাই থানার পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফ্রিজ থেকে ওই নারীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে।

অশীতিপর বৃদ্ধ ফালুজ উদ্দিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক উল্লেখ করে ওসি রেজাউল হক জানান, গলা কেটে হত্যা করা ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া ডাকাতির বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে বলেও জানান ওসি। এ ঘটনায় ধামরাই থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

Share.