বোরকা বিক্রির বিজ্ঞাপনে তোপের মুখে অ্যামাজন

15

বোরকা বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে তোপের মুখে পড়েছে জায়ান্ট অনলাইন মার্কেটপ্লেস অ্যামাজন। সম্প্রতি তারা ‘সেক্সি সৌদি বোরকা অ্যান্ড কসটিউম’ নামের এক ধরনের বোরকা বিক্রির বিজ্ঞাপন দেয়। এতেই  অ্যামাজনের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

অ্যামাজনের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপনটি দেওয়ার পরই হাজার হাজার কমেন্ট করেন বিক্ষুব্ধ ক্রেতারা।

ক্রেতারা বলেন, বোরকা ইসলামিক এবং বর্ণবাদী পোষাক। তাই জায়ান্ট অনলাইন মার্কেটপ্লেস অ্যামাজন কখনো বর্ণবাদী পোশাক তাদের সাইটে বিক্রি করতে পারে না। এতে বর্ণবাদীকে উসকে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপনে মডেল এক নারী ও পুরুষের ছবিও দেওয়া হয়। মেয়েদের পোশাকটিতে দেখা যায়, এক নারী কালো রঙের বোরকা পরে দাঁড়িয়ে পোজ দিয়েছেন। তার ‍মুখসহ পুরো শরীর ঢাকা কিন্তু পায়ের উরু থেকে নিচের অংশ খোলা।

আবার পুরুষের পোশাকে দেখা যায়, এক মডেল পুরোটা সৌদি ধাঁচে বানানো পোশাক পরেছেন। তার গলা থেকে পায়ের গোড়ালি পর্যন্ত সাদা গাউনে ঢাকা। আর মাথায় রুমাল, চোখে কালো চশমা ও থুতনিতে একটু দাড়ি।

অ্যামাজনে দেওয়া বিজ্ঞাপনের ছবি এটি। তবে সমালোচনার কিছুক্ষণ পরই সেই বিতর্কিত বিজ্ঞাপন সরিয়ে নেয় অ্যামাজন কর্তৃপক্ষ।

এক বিক্ষুব্ধ ক্রেতা ওই বিজ্ঞাপনে কমেন্ট করে বলেন, ‘আপনারা সবাই জঘন্য বর্ণবাদকে উৎসাহিত করছেন। এ পোশাকটি আমাদের সংস্কৃতির সঙ্গে যায় না।’

আরেক ক্রেতা কমেন্ট করেছেন, ‘অভিনব পোষাক পরিচ্ছদে একজন মানুষের সংস্কৃতি প্রকাশ পায় না।’

এদিকে বিষয়টি নিয়ে অ্যামাজনের ভেতরেও প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

এক মুখপাত্র বলেন, ‘আমাদের সব বিক্রেতাকে অ্যামাজনের নিয়মনীতি মেনে প্রোডাক্ট বিক্রি করতে বলা হচ্ছে। তারপরও যারা নিয়ম ভাঙবে তার অ্যাকাউন্ট বাতিল করা হবে। আমরা চাই না কোনো বিক্রেতার অ্যাকাউন্ট আমাদের বাতিল করতে হয়।’

তবে এ সমালোচনার কিছুক্ষণ পরই সেই বিতর্কিত বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নেয় অ্যামাজন।

Share.